রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১১:৩৭:১৩ এএম

এবার রানু গাইলেন তার মেয়ের সাথে

বিনোদন | বৃহস্পতিবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ০৬:২৮:০০ এএম

স্বামী, সংসার সব হারানো রানু মণ্ডলের জীবন বদলে গেছে লটারি পাওয়ার মতো।
তিনি আজ ‘তারকা’ তকমা পেয়েছেন। প্রতিদিন সংবাদের শিরোনাম হচ্ছেন। তাঁকে
নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি সমালোচনাও হচ্ছে। এবার সংবাদের শিরোনাম হলো রানু
মণ্ডল আর তাঁর মেয়ের দ্বৈত গান। মা মেয়ে গাইলেন মোহাম্মদ রাফির, ‘আজকাল
তেরে মেরে প্যার কা চর্চে’।

রানুকে নিয়ে নতুন খবর আছে। বলিউড গায়ক হিমেশ রেশমিয়ার ছবি ‘হ্যাপি,
হার্ডি অ্যান্ড হির’ ছবির একাধিক গান রেকর্ড করতে দেখা গিয়েছিল রানু
মণ্ডলকে। সেই সব রেকর্ডিংয়ের ভিডিও নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে
ধারাবাহিকভাবে পোস্ট করেছিলেন হিমেশ। রানুর রেকর্ড করা সেই গানগুলোর অন্যতম
ছিল ‘তেরি মেরি কাহিনি’ গানটি। সেই গানেরই অফিশিয়াল ভিডিও বুধবার প্রকাশিত
হলো ইউটিউবে।


রানু মণ্ডল যখন নতুন আলোচনায় এসেছিলেন, তখন তাঁর মেয়ের সমালোচনা শোনা
গেছে। অভিযোগ ওঠে, রানুর মেয়ে এলিজাবেথ সাথী রায় নাকি মাকে দেখেন না।
কিন্তু রানুর মেয়ে সাথীর দাবি, তিনি ছেলেকে নিয়ে একা থাকেন। ফলে নিয়মিত
মায়ের কাছে আসা হয় না। কিন্তু মায়ের খোঁজ রাখেন। সাথী রায়ের এই বক্তব্য কেউ
বিশ্বাস করেন, কেউ আবার বলেন, মা বিখ্যাত হয়ে যাওয়ার পর মায়ের কথা মনে
পড়েছে।


সে যা হোক, মেয়েকে ঠিকই বুকে টেনে নিয়েছেন রানু মণ্ডল। শুধু তা-ই নয়,
মেয়ের সঙ্গেই এবার একটি গান গাওয়ার ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে ইনস্টাগ্রামে। রানু
মণ্ডলের নামে তৈরি একটি ইনস্টাগ্রাম ঠিকানায় এই ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে। ১৯৬৮
সালের ব্রহ্মচারী সিনেমার গান, ‘আজকাল তেরে মেরে প্যার কে চর্চে…’। অবশ্য এ
ভিডিও বেশ কয়েক দিন আগেই আপলোড হয়েছে।


মেয়ে এলিজাবেথ সাথী রায়ের সঙ্গে রানু মণ্ডল। ছবি: ইনস্টাগ্রামমেয়ে এলিজাবেথ সাথী রায়ের সঙ্গে রানু মণ্ডল। ছবি: ইনস্টাগ্রামইন্ডিয়ান
টাইমস, এনডিটিভসহ বেশ কিছু ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, আজ বুধবার
রানু মণ্ডলকে নিয়ে সবচেয়ে বেশি আলোচনা হয়েছে বলিউডে গাওয়া গানটি নিয়ে।
‘হ্যাপি হার্ডি অ্যান্ড হির’-এর রোমান্টিক গান ‘তেরি মেরি কাহিনি’তে ফুটে
উঠছে ছবির নায়ক-নায়িকার প্রেম কাহিনি। হিমেশের পাশাপাশি রানুর গলা সেই গানে
ভিন্ন মাত্রা যোগ করেছে। ‘হ্যাপি, হার্ডি অ্যান্ড হির’ ছবিতে নায়কের
ভূমিকায় অভিনয় করেছেন হিমেশ নিজেই। তাঁর বিপরীতে নায়িকার ভূমিকায় অভিনয়
করেছেন অভিনেত্রী সোনিয়া মান। এই দুজনের মধ্যে সুন্দর সম্পর্ক কীভাবে ম্লান
হয়ে গেল, সেটাই ছবির গল্প। বুধবার ‘তেরি মেরি কাহিনি’ গানের অফিশিয়াল
ভিডিও প্রকাশিত হওয়ার ঘণ্টা তিনেকের মধ্যে ছয় লাখের বেশি দেখা হয়েছে।


রানু মারিয়া মণ্ডল ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা। ১৯৬৫ সালে
পশ্চিমবঙ্গের কৃষ্ণনগরের কার্তিকপাড়া গ্রামে তাঁর জন্ম। বাবা আদিত্য কুমার।
তিনি ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ছিলেন। একেবারেই শৈশবেই মা-বাবাকে হারান রানু
মণ্ডল। বড় হয়েছেন অন্যের বাড়িতে। স্কুলে যাওয়া হয়নি। সুরেলা কণ্ঠ, পরিষ্কার
উচ্চারণ, সরলতা ছিল সম্পদ। রানু মণ্ডল একেবারেই পথের মানুষ ছিলেন। পথে পথে
ঘুরে বেড়াতেন। সবাই তাঁকে ‘পাগলি’ নামে ডাকত। নিজের খেয়ালে গান করতেন।
স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে বসে লতা মঙ্গেশকরের ‘এক প্যায়ার কা নাগমা হ্যায়’
গানটি গেয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে রাতারাতি তারকা হয়ে যান রানু মণ্ডল।
স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে বসে রানু মণ্ডলের গাওয়া লতা মঙ্গেশকরের ‘এক প্যায়ার
কা নাগমা হ্যায়’ গানটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করেন অতীন্দ্র
চক্রবর্তী।



খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন