শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯ ০২:১০:৫৭ পিএম

ঈদযাত্রা যাতে স্বস্তির হয় এ জন্য আমরা কাজ করছি: ওবায়দুল কাদের

জাতীয় | সোমবার, ৪ জুন ২০১৮ | ০৪:২৬:০৭ পিএম

এবারের ঈদযাত্রা গত বছরের চেয়ে স্বস্তিদায়ক হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, বিগত সব সময়ের চেয়ে এবার ঈদের প্রস্তুতি ভাল। এবার দেশের কোথাও রাস্তার জন্য যানজট হবে না। ফোর লেনগুলোর অবস্থা এবার অনেক ভাল। বৃষ্টিজনিত ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক মেরামতে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। অতিবৃষ্টিতে যান চলাচলে ধীরগতি হলেও যানজট হবে না। ঈদযাত্রা যাতে স্বস্তির হয় এ জন্য আমরা কাজ করছি।

একই সঙ্গে সড়ক-মহাসড়ক নিয়ে কোনো ধরনের ‘বিভ্রান্তিকর তথ্য’ প্রচার করে আতঙ্ক সৃষ্টি না করতে সবার প্রতি অনুরোধও জানিয়েছেন তিনি। সোমবার মতিঝিলে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) প্রধান কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সভা শেষে সেতুমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

আসন্ন ঈদে যাত্রী পরিবহনে বিআরটিসির স্পেশাল বাস সার্ভিসসহ অন্য প্রস্তুতি নিয়ে কর্মকর্তা ও ডিপো ম্যানেজারদের সঙ্গে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, ঢাকার চারপাশের যানজটপ্রবণ এন্ট্রি ও এক্সিট পয়েন্টগুলোর ব্যবস্থাপনায় বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ফেনী রেলওয়ে ওভারপাসের দুই লেন যানবাহন চলাচলের জন্য ইতিমধ্যে উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। সেখানে এখন আর যানজট হচ্ছে না। ১৫ জুনের মধ্যে নির্মাণকাজ পুরোপুরি শেষ হবে। তখন সম্পূর্ণ যানজটমুক্ত হবে ফেনী রেলওয়ে ওভারপাস এলাকা। ইন্ডিয়ান লাইন অব ক্রেডিটের আওতায় ময়নামতী-সরাইল সড়কের নির্মাণকাজ শুরুর বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। আপাতত এই সড়কে মেরামত ও সংস্কারকাজ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মেঘনা ও গোমতী সেতুর টোল প্লাজায় টোল আদায় ব্যবস্থাপনা আরো উন্নত করা হয়েছে।

বৈঠকে বিআরটিসির চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ ভূঁইয়াসহ অন্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, এবার বিআরটিসির ঈদ স্পেশাল সার্ভিসের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হবে ৫ জুন। স্পেশাল সার্ভিসে এবার থাকছে ৯০৪টি বাস। জরুরি প্রয়োজন মেটাতে ৫৪টি বাস স্ট্যান্ডবাই থাকবে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে।

এর আগে, গতকাল রোববার এক সরকারি তথ্য বিবরণীতে জানানো হয়, রাজধানীর মতিঝিল, জোয়ার সাহারা, কল্যাণপুর, মোহাম্মদপুর, গাবতলী, মিরপুর, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, নরসিংদী বাস ডিপো ও ঢাকা ফুলবাড়িয়ার সিবিএস-২ থেকে বিভিন্ন রুটের (ঢাকা থেকে) আগাম টিকেট বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

তথ্য বিবরণীতে জানানো হয়, মতিঝিল ডিপোর নিয়ন্ত্রণে ঢাকা-নাগরপুর, দাউদকান্দি, বাজিতপুর, খুলনা, দিনাজপুর, নেত্রকোনা রুট। কল্যাণপুর ডিপোর নিয়ন্ত্রণে রংপুর, পঞ্চগড়, কুড়িগ্রাম, গাইবান্দা, কুষ্টিয়া, রাজশাহী, নওগাঁ, শেরপুর, জামালপুর, নেত্রকোনা, নাগরপুর, গোবিন্দগঞ্জ, রানীসংকর, ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর রুট। গাবতলী ডিপোর নিয়ন্ত্রণে রংপুর, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও রুট। জোয়ার সাহারা ডিপোর নিয়ন্ত্রণে বিশ্বরোড-পাঁচদোনা, রংপুর, নওগাঁ, জয়পুরহাট, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ ও বগুড়া রুট। মিরপুর ডিপোর নিয়ন্ত্রণে রংপুর, কুষ্টিয়া, কুড়িগ্রাম, দিনাজপুর ও নওগাঁ রুট এবং মোহাম্মদপুর ডিপোর নিয়ন্ত্রণে রংপুর রুট।

এছাড়া গাজীপুর ডিপোর নিয়ন্ত্রণে বিশ্বরোড-পাঁচদোনা, কিশোরগঞ্জ, টাঙ্গাইল, জামালপুর, নেত্রকোনা, ময়মনসিংহ, রংপুর, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও রুট। নারায়ণগঞ্জ ডিপোর নিয়ন্ত্রণে ঢাকা-মাওয়া, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা-মেঘনা উপজেলা, বিশ্বরোড-পাঁচদোনা রুট। কুমিল্লা ডিপোর নিয়ন্ত্রণে ঢাকা-গৌরিপুর, ঢাকা-কুমিল্লা-বরুরা রুট এবং নরসিংদী ডিপোর নিয়ন্ত্রণে ঢাকা-নরসিংদী, ঢাকা-ভৈরব রুটে যাত্রী সাধারণকে বিআরটিসির ঈদ-স্পেশাল সার্ভিসের সেবা গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন