রবিবার, ২৫ আগস্ট ২০১৯ ০১:৫০:১৫ এএম

অর্থ ছাড়া মিলেনা সংযোগ

জেলার খবর | নীলফামারী | বুধবার, ৭ মার্চ ২০১৮ | ০৪:৫৬:২৮ পিএম

নীলফামারী জেলার সৈয়দপুরসহ গোটা জেলার বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিউবো) এর বিক্রয় ও বিতরণ অফিসে অর্থ ছাড়া মিলেনা কোন নতুন সংযোগ।

গ্রাহকরা সংযোগ নিতে আবেদন করলে সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীর নিয়োজিত বহিরাগত এক দালালের মাধ্যমে ফাইল জমা না দিলে আবেদনের ফাইল ফেরত দেয়া হয়।

দালালের মাধ্যমে সংযোগ প্রতি ৩ থেকে ৫ হাজার টাকা লেনদেন করলেই পাওয়া যায় সংযোগ। এ কারণে সাধারণ গ্রাহকরা আবেদন করেও শুধুমাত্র দালাল না ধরায় মাসের পর মাস হয়রানির শিকার হচ্ছেন। এমন অভিযোগ অনেক আবেদনকারী গ্রাহকের।

সরেজমিনে মঙ্গলবার (০৬ মার্চ) দুপুরে গিয়ে দেখা যায়, বিউবো অফিসের কর্মচারী রেস্ট হাউজে অবস্থান করেন শামীম নামে ওই অফিসের সাবেক এক কর্মচারীর ছেলে। সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলী শওকতের পরিবর্তে তিনি সংযোগ আবেদনকারীদের ফাইল তৈরি করছেন। তার মাধ্যমে সংযোগ আবেদকারীদের কাছ থেকে নেয়া ৩- ৫ হাজার টাকার বিনিময়ে চলছে অফিসিয়াল কার্যক্রম চূড়ান্ত করণ। আর শামীমকে সহযোগিতা করছেন চুরি ও মাদকাসক্তের অভিযোগে ডোমার থেকে ওএসডি হওয়া হাবিবুর রহমান আজম নামে সাহায্যকারী পদের এক কর্মচারী।

একটি সূত্রের মতে, এই আজম ও শামীম এ অফিস চত্বরে রাতে অবস্থান করে। তারা এখানে মাদক সেবন ও মূল্যবান যন্ত্রপাতি চুরি করে রাতেই বিক্রি করে থাকে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলী শওকত অবগত হলেও শুধুমাত্র তাদের দ্বারা আর্থিকভাবে সুবিধা প্রাপ্তির কারণে প্রশ্রয় দিয়ে চলেছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে অফিসের কয়েকজন কর্মচারী জানান, প্রকৌশলী শওকত এ অফিসে যোগদানের পর থেকেই চরম অরাজকতা শুরু হয়েছে। অর্থ ছাড়া কোন কাজই হয়না। সারাদিন প্রকৌশলী বাহিরে অবস্থান করে আর তার কাজ করছেন বহিরাগত ও মাদকাসক্ত শামীম। সে এখানে রাত্রিযাপন করায় মাঝে মধ্যেই চুরির ঘটনা ঘটছে। তাদের বেপরোয়া আচরণের কারণে এখানে যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

এ ব্যাপারে বিক্রয় ও বিপণন কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আলী জিন্নাহর সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, তিনি শামীম নামে কাউকে চেনেন না। সে অফিসের কোন কর্মচারী নয়। সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে শামীমকে ডেকে নিয়ে তাকে যেন আর এ অফিস চত্বরে না দেখা যায় সে বিষয়ে সতর্ক করে দেন তিনি। আর আজম এ অফিসের সাহায্যকারী পদে একজন কর্মচারী। সে চুরি ও মাদক সেবনের দায়ে বিভাগীয় শাস্তির আওতায় এখানে বদলি হয়ে এসেছে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন