মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ১১:৫১:০১ পিএম

শেরপুরে পাহাড়ি ঢলে ক্ষতির পরিমান প্রায় ৯ লক্ষ টাকা

জাহিদুল খান সৌরভ | জেলার খবর | শেরপুর | বৃহস্পতিবার, ১২ অক্টোবর ২০১৭ | ১১:৪৫:৪৯ এএম

গত ৩০ সেপ্টেম্বর অতি বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে ঝিনাইগাতি উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের প্রায় ২৫টি গ্রাম প্লাবিত হয়। এতে প্লাবিত গ্রামগুলোর আবাদকৃত আমন ধান নিমজ্জিত ও পুকুরের চাষের মাছ ভেসে যায়।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছর উপজেলায় ১৪ হাজার ৬৭৫ হেক্টর জমিতে রোপা আমন ধানের চাষ করা হয়েছে। এর মধ্যে এক হাজার ৫০০ হেক্টর রোপা আমন ধান বন্যায় তলিয়ে যায়। তবে সম্পূর্ণভাবে বিনষ্ট হয়েছে এক হাজার ১০ হেক্টর জমির ধান। এ পরিমাণ জমিতে ২ হাজার ৬২১ টন চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল, যা ৩৪ টাকা কেজি দরে দাঁড়ায় ৮ কোটি ৯১ লাখ ১৪ হাজার টাকা।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. আজিজুর রহমান বলেন, আকস্মিক এ বন্যায় উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের প্রায় ১২ কিলোমিটার কাঁচারাস্তা বিধ্বস্ত হওয়ার পাশাপাশি ৩ হাজার ঘরবাড়ি প্লাবিত হয়।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. শফিউল আলম বলেন, ১২৩ একর জমির ৩৫০টি পুকুরের প্রায় কোটি টাকার মাছ বন্যার পানিতে ভেসে গেছে। ফলে মৎস্য চাষিরা দিশাহারা হয়ে পড়েছেন।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. আব্দুল আওয়াল বলেন, চলতি বন্যায় উপজেলার ৫ হাজার চাষি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ করে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে প্রেরণ করা হয়েছে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন