রবিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২০ ১১:০০:৫০ পিএম

বিএনপি কার্যালয়ের তালা ভেঙে হামলা ও ভাংচুর

জেলার খবর | চট্টগ্রাম | বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০১৭ | ১০:৪৪:৩৭ এএম

হাটহাজারী উপজেলা বিএনপির কার্যালয়ে অতর্কিত হামলা চালিয়ে স্থাপনা ও আসবাবপত্র ভাংচুর করেছে আওয়ামী লীগ সমর্থক চেতনা ’৭১-এর নেতাকর্মীরা।

বুধবার সন্ধ্যার দিকে হাটহাজারী বাস স্টেশন এলাকায় পপুলার সুপার মার্কেটে অবস্থিত বিএনপির কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

এ প্রসঙ্গে হাটহাজারী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ বেলাল উদ্দীন জাহাঙ্গীর বলেন, এটি একটি অপ্রীতিকর ঘটনা। কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা তদন্ত করা হচ্ছে।

উপজেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক মো. মাহাবুবুল আলম চৌধুরী জানান, উপজেলা বিএনপির কার্যালয়ে অতর্কিত ন্যাক্কারজনক হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় আমরা হতবাক হয়েছি। আমরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এ বিষয়ে দলের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ যে সিদ্ধান্ত দেবে সে অনুযায়ী আমরা কর্মসূচি গ্রহণ করবো।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, যুবলীগ চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী ও তার পরিবার সম্পর্কে উত্তর জেলা বিএনপির কটূক্তির প্রতিবাদে বুধবার হাটহাজারী বাসস্টেশন চত্বরে একটি বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে সরকারি দল সমর্থিত সংগঠন চেতনা ’৭১-এর নেতাকর্মীরা। বিকাল ৫টার দিকে ওই সংগঠনের নেতৃবৃন্দের বের করা বিক্ষোভ মিছিলটি হাটহাজারী পৌরসভার গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে বাসস্টেশন চত্বরে প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে।

সমাবেশ চলাকালে একদল নেতাকর্মীরা বন্ধ থাকা উপজেলা বিএনপির কার্যালয়ের তালা ভেঙে সেখানে থাকা ফার্নিচার, চেয়ার, টেবিল, সাইনবোর্ড ও মহাসড়কের পাশে থাকা বিলবোর্ডে ব্যাপক ভাংচুর করে।

এদিকে চেতনা ’৭১-এর উপদেষ্টা ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মঞ্জুরুল আলম চৌধুরী বলেন, এটি একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা।

যুবলীগ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিএনপির কটূক্তির প্রতিবাদ করতে গিয়ে কিছু বিক্ষুব্ধ কর্মী হয়তো ক্ষোভে এমন ঘটনা ঘটাতে পারে। তবে ঘটে যাওয়া বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক ও অনাকাঙ্ক্ষিত। ঘটনার খবর পেয়ে আমি সরেজমিন বিএনপির কার্যালয় পরিদর্শন করেছি। রাজনৈতিক পরিবেশ অক্ষুন্ন রাখতে প্রয়োজনে ক্ষতিপূরণ দিয়ে কার্যালয়টি মেরামত করব বলে বিএনপির নেতাকর্মীদের আশ্বস্ত করেছি।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন