শনিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ০৩:২৯:২১ পিএম

বিয়ের দাবিতে যুবলীগ নেতার বাড়িতে অবস্থানকারী প্রেমিকা থানায়

নীলফামারী সংবাদদাতা | জেলার খবর | নীলফামারী | শনিবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৬ | ০৩:২২:৪৮ পিএম

নীলফামারীর ডোমারে বিয়ের দাবিতে প্রেমিক যুবলীগ নেতা ও ইউপি সদস্যর বাড়িতে অবস্থানরত অনার্স পড়ুয়া প্রেমিকাকে আটক করে থানায় নিয়েছে পুলিশ। ডোমার থানা পুলিশ প্রেমিক যুবলীগ নেতার বাবার একটি অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে গত  বৃহস্পতিবার রাতে আটক করে শুক্রবার আদালতে পাঠায়। আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে তাকে জেল হাজতে পাঠান।

জানা গেছে, বামুনিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক ও সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের ৫ নম্বর  ওয়ার্ড সদস্য ওই এলাকার মশিয়ার রহমানের ছেলে তিতাস রহমান বাবুর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে একই উপজেলার মৌজা পাঙ্গা গ্রামের জয়নাল আবেদীনের মেয়ে নীলফামারী সরকারি কলেজের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী জোবায়দা আবেদীন জুঁই (২০)-এর। গত বুধবার সন্ধ্যা থেকে জুঁই তার প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করেন। এরপর প্রেমিক ইউপি সদস্য ও যুবলীগ নেতা তার সহযোগীদের সহায়তায় ক্ষমতার প্রভাবে রাতেই ডোমার থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে প্রেমিকা জুঁইকে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

জোবায়দা আবেদীন জুঁই বলেন, "দেড় বছর আগে বাবুর সঙ্গে আমার মোবাইলে যোগাযোগ হয়। যোগাযোগের পর থেকেই তার সঙ্গে আমার ঘনিষ্ঠতা বাড়তে থাকে যা একপর্যায়ে দৈহিক সম্পর্কে রূপ নেয়। আমি তার সঙ্গে সম্পর্ক করতে না চাইলে সে নানাভাবে আমাকে উত্ত্যক্ত করতো। এখন সে অন্য মেয়েকে বিয়ের জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। বিয়ের কথা বলে একাধিকবার সে আমার সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এখন বিয়ের কথা বললেই সে নানা টালবাহানা করতে থাকে। লোকমুখে জানতে পারি বুধবার তাকে মেয়ে পক্ষ দেখতে আসবে। এরপর তাকে বার বার মোবাইলে কল করলেও সে তা রিসিভ না করায় আমি তার বাড়িতে অবস্থান করছি।"

জুই আরো জানান, তিনি বিয়ের দাবিতে ইউপি সদস্য বাবুর বাড়িতে আসার পর থেকেই সে (বাবু) গা ঢাকা দেয়। তিনি বলেন, "আমি তাদের বাসায় যখন আসি তখন বাবু বাসায় ছিল। আমাকে দেখে সে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়।" বামুনিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক ও সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড ইউপি সদস্য তিতাস রহমান বাবু বলেন, "মেয়েটির সঙ্গে আমার কোনো সংস্পর্ক নেই। পরিকল্পিতভাবে আমার প্রতিপক্ষের লোকজন তাকে বাড়িতে পাঠিয়েছে। তাছাড়া প্রেমের  সম্পর্ক ছিল তার কোনো প্রমাণ মেয়েটির কাছে নেই।" ডোমার থানার ওসি আহম্মেদ রাজিউর রহমান বলেন, "জুঁই একটি বাড়িতে গিয়ে আত্মহত্যার ভয়ভীতি প্রদর্শন করে হুমকি প্রদর্শন করছিলেন- এমন অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে আটক করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।"

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন