বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯ ১১:১৭:৫৮ এএম

ডোমারে-শশুর বাড়ির লোকেদের নির্যাতনে প্রতিবন্ধী গৃহবধু হাসপাতালে

জেলার খবর | নীলফামারী | বুধবার, ২ নভেম্বর ২০১৬ | ১০:০৬:৩১ এএম

নীলফামারীর ডোমারে চাচা শশুরের নির্যাতনে বাক-প্রতিবন্ধি গৃহবধু এখন হাসপাতালে যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে।

ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার উপজেলার বামুনিয়া ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ড বারবিশা বামুনিয়া গ্রামে।
সরেজমিনে জাানা যায়, নির্যাতিতা গৃহবধু অঞ্জনা (৩০) এর সাথে তার স্বামী মণিরামের সাংসারিক বিষয়ে সামান্য কথা কাটাকাটিকে কেন্দ্র করে অঞ্জনার চাচা শশুর নাছুয়া রায় তাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এ সময় অঞ্জনা জ্ঞান হারিয়ে ফেললে এলাকাবাসী তাকে ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করে দেয়। বর্তমানে সে হাসপাতালের ১নং বেডে চিকিৎসাধীন রয়েছে। 

সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে তার সাথে কথা বলতে চাইলে সে কান্না জরিত কন্ঠে নির্যাতনে আঘাতের চিহৃ দেখিয়ে এ প্রতিবেদককে জানায়, আমার ১০ বছর আগে খামার বামুনিয়ার মনিরাম রায়ের সাথে বিবাহ হয়। আমরা দুই সন্তান,স্বামী ও শাশুরী সহ একত্রে বসবাস করি। 

গত শনিবার সকালে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে কথা কাটাকাটি হচ্ছিল,এমন সময় আমার কাকা শশুর নাছুয়া রায় আমাদের বাড়ীতে এসে কোন কিছু না জেনেই আমাকে তার হাতের লাঠি দিয়ে বেধরক মারতে থাকে। এতে আমার স্বামী বাধা দিলে তাকে ও মার ধর করে এবং অশ্লিল ভাষায় গালিগালাজ করে। মারধরের একপর্যায়ে আমার হাতের শাঁখা ভেঙ্গে যায় এবং আমি জ্ঞান হারাই্। প্রায় সময় সে আমাকে অকারনে মারধর করে। 

অঞ্জনা একজন বাক প্রতিবন্ধী। অঞ্জনার রানীর স্বামি মনিরাম জানায়, অনেক দিন থেকে কাকা আমার উপর অমানবিক নির্যাতন করে আসছে, সে এলাকার হিংস্র ও প্রভাবশালী লোক। তার অত্যাচারে আমি আর বউ বাচ্চা নিয়ে থাকতে পারছি না। আমি খুব গরিব মানুষ তার বিরুদ্ধে কথা বলতে পারি না । এখন আমি কি করব জানি না। ঘটনার ৪দিন পেরিয়ে গেলেও কেউ খোঁজ নেয়নী অঞ্জনার।

এ বিষয়ে অঞ্জনার কাকা শশুর নাছুয়ার সাথে কথা বললে, সে অকপটে তার বৌমাকে মার-ধরের বিষয় স্বীকার করে বলেন,আমি মেরেছি আরও মারব। আমি এলাকার শ্বাসন কর্তা। এতে কারো কিছু বলার নাই। এলাকার সব কিছু আমি দেখি। তোমাদের কিছু করার থাকলে করো। 

ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বিনোদ চন্দ্র রায় জানায়, নাছুয়া খুব খারাপ প্রকৃতির লোক,ওরা কারও কথা শুনে না। তার দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি হওয়া দরকার। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান ওয়াদেজ্জামান বুলেট জানায়,ঘটনাটী শুনেছি। হাসপাতাল থেকে ফিরে আসুক পরে ব্যাবস্থা নিব।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন